Search Here

Most Recent

১ জুলাই, ২০২১

Pre-History mcq in bengali | indian history gk in bengali | প্রাক-ইতিহাস প্রশ্নোত্তর

 PRE-HISTORY MCQ QUETION ANSWER


gkghor.in
Ancient Indian History | Indian History Question Answer | History MCQ 



Hello,
        বন্ধুরা আপনাদের জন্য হাজির হয়েছি প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের অধ্যায় ভিত্তিক ইতিহাস প্রশ্নোত্তর নিয়ে। এই পর্বে আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি প্রাক ঐতিহাসিক যুগের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর। এই pre- history mcq question answer খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই gk বা mcq questions answers গুলো বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় এসে থাকে। gk ghor এর তরফ থেকে আপনাদের জন্য আরও ইতিহাসের অধ্যায় ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর নিয়ে আসা হবে। আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকুন।  ইতিহাসের আরও mcq questions answers পেতে আমাদের website ফলো করতে থাকুন। প্রাচীন ভারতের ইতিহাসের প্রাক ঐতিহাসিক যুগের প্রশ্নোত্তর গুলি দেখে নিন।  


প্রাক ঐতিহাসিকযুগ



প্রাক ঐতিহাসিকযুগ (Pre-History) ইংরেজি শব্দ "HISTORY" গ্রিক শব্দ "Historia" থেকে নেওয়া হয়েছে। সর্ব প্রথম অথর্ববেদ এ ইতিহাস শব্দের ব্যবহার করা হয়েছে। ইতিহাস হল অথর্ববেদের উপবেদ। ইতিহাসের মহত্ব থেকেই কৌটিল্য বলছেন - "রাজাকে প্রতিদিন কিছু সময় ইতিহাস শ্রবণে নিজেকে নিয়োজত করা উচিত"। Bakon এর মতে- ইতিহাস মানুষকে বুদ্ধিমান বানাতে সাহায্য করে। বরনি ইতিহাসকে বিজ্ঞানের রানী বলে অভিহিত করেছেন। সর্ব প্রথম রোমান সম্রাট অগাস্টাস ইতিহাস লেখায় প্রতিবন্ধকতা লাগিয়ে ছিলেন। একইভাবে মধ্যকালে ঔরঙ্গজেব ইতিহাস লেখায় প্রতিবন্ধকতা জারি করেছিলেন।   

  
প্রস্তর যুগ : Robert Brushfoot কে ভারতের প্রাক ইতিহাসের জনক বলা হয়।13th may 1863 তে রবার্টব্রুস ফুট পল্লবপুরমে সর্বপ্রথম প্রস্তর যুগের উপকরণ হিসাবে Coarzite বা স্ফটিক পাথরের উপকরণ পেয়েছিলেন। 



প্রস্তর কাল :প্রস্তর যুগে মানুষের দ্বারা তৈরী হাতিয়ার যেহেতু পাথর দিয়ে তরী তাই এই যুগকে প্রস্তর যুগ অ্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। সর্বপ্রথম 1865 সালে জন লুবক পাষাণ যুগকে পূর্ব প্রস্তর এবং নব্য প্রস্তর যুগে ভাগ করেছেন। পূর্ব প্রস্তর এবং নব্যপ্রস্তর (Neolithic) এই শব্দগুলি Jonh Loobak সর্বপ্রথম 1865 সালে তার প্রকাশিত বই Pre-Historic টাইমসে তুলে ধরেছেন। প্রচীন প্রস্তর ( Palaeolithic) যুগকে আবার তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথা - নিম্ন পূর্ব-প্রস্তর যুগ, মধ্য পূর্ব প্রস্তর যুগ, এবং উচ্চ পূর্ব প্রস্তর যুগ। 



প্রস্তর যুগের বিভাগ : প্রস্তর যুগ কে সাধারণত তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথা প্রাচীন প্রস্তর যুগ (Palaeolithic Age), মধ্য প্রস্তর যুগ (Mesolithic Age) এবং নব্য প্রস্তর যুগ (Neolithic Age)। 



প্রচীন প্রস্তর যুগ (Palaeolithic Age) : প্রচীন প্রস্তর যুগের তিনটি ভাগ নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হল
 

নিম্ন পূর্ব প্রস্তর যুগ : নিম্ন পূর্ব প্রস্তর যুগকে উপকরণের উপর ভিত্তি করে দু-ভাগে ভাগ করা যায়। 


১. চপার চপিং সংস্কৃতি এবং
২. এশ্যুলিয়ন বা Hand axe and Cliber সংস্কৃতি। 


চপার চপিং সর্ব প্রথম সোহান নদী ঘাটি এলাকায় পাওয়া যায় | তাই এই সংস্কৃতিকে সোহান সংস্কৃতিও বলা হয়। এই যুগের সমস্ত হাতিয়ার স্ফটিক দিয়ে তৈরী। 



মধ্য পূর্ব প্রস্তর যুগ : এই যুগের কালবিধি 150,000 - 35,000 খ্রীস্টপূর্ব ধরে নেওয়া হয়। কেডি ব্যানার্জি এই কালকে নেবাসিয় সংস্কৃতি, তথা এ কে ঘোষ এই যুগকে ফলক সংস্কৃতি বলে উল্লেখ করেছেন। 


              
  উচ্চ পূর্ব প্রস্তর যুগ : এই কালকে শ্রেষ্ঠ যুগ  Leptolithic বলে মনে করা হয়। এই যুগের কালবিধি 35,000 - 10000 খ্রীস্টপূর্ব ধরে নেওয়া হয়ে থাকে। এই যুগের মূখ্য উপকরণ হল ব্লেড। এই জন্য এই যুগকে ব্লেড প্রধান যুগ বলা হয়।  জ্ঞানী মানব হোমোস্যাপিয়েন্স এর আবির্ভাব সর্ব প্রথম এই যুগেই হয়েছে। কর্নুল এবং মুচ্ছতলা থেকে সর্ব প্রথম এই যুগের হাড়ের তৈরি উপকরণ পাওয়া গেছে। উচ্চ পূর্ব প্রস্তর যুগের উল্লেখযোগ্য স্থান গুলি হল - বেলান ঘাটি-এই স্থান থেকেই সর্ব প্রথম উচ্চ পূর্ব প্রস্তর যুগের প্রমান পাওয়া যায়। এছাড়াও বাঘোর, থেকেও এই যুগের গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ পাওয়া গেছে। 



মধ্য প্রস্তর যুগ(Mesolithic Age) : এই যুগকে অনুপুরা প্রস্তর যুগ, আদ্য নব প্রস্তর যুগ এবং পরিবর্তন কালও বলা হয়। মধ্য প্রদেশের আদমগড় এবং রাজস্থানের বাঘোর মধ্য প্রস্তর যুগের এই দুটি স্থান থেকে পশু পালনের প্রাচীনতম প্রমাণ পাওয়া যায়। ভারতে মানব অস্থি পান্জর সর্ব প্রথম এই যুগেই পাওয়া যায়। এই যুগেই লাশকে দাপনানোর প্রথা শুরু হয়। এর ফলে এই যুগ থেকেই কবর খননের প্রক্রিয়া প্রচলিত হয়। মধ্য প্রস্তর যুগের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান- বাঘোর, লংঘনাজ, ভীমভেটকা, চোপানিমান্ডো, মহাদহা, দমা, ইত্যাদি। 



নব প্রস্তর যুগ(Neolithic Age) : বিশ্ব ইতিহাস হিসাবে নব প্রস্তর যুগের সুচনা হয় 9000 খ্রীস্টপূর্ব থেকে। নব প্রস্তর শব্দটি সর্ব প্রথম জন লুবক তার বিখ্যাত বই Pre Historic Times এ প্রকাশ করেন। নব প্রস্তর যুগের কয়েকটি বিশেষ স্থান হল - 


মেহেরগড় - এটি নব প্রস্তর যুগ এবং হরপ্পা দুটি যুগেরই একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। মেহেরগড় থেকে কৃষি এবং পশু পালনের প্রমান পাওয়া যায়।
 ক্যেটা ঘাটি, বুর্জাহোম, গুফকরাল, কোল্ডিহবা, মহগড়া, চোপানিমান্ডো, মধ্য গঙ্গা ঘাটি, চিরান্দ এ যুগের গুরুত্বপূর্ণ স্থান।                                        
                                                                                    
                              

NEXT


👉Indus Valley Civilization MCQ 


👉 Vedic Civilization MCQ 


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন