Search Here

Most Recent

২৩ জুলাই, ২০২১

খলজি বংশ | Khalji Dynasty | Delhi sultanate

  খলজি বংশ (Delhi Sultanate)

Delhi sultanate   www.gkghor.in
Khalji Dynasty | Delhi sultanate | Indian History



সুপ্রিয় শিক্ষার্থীগণ,

এই পর্বে আপনাদের জন্য মধ্যভারতের ইতিহাসের (Medieval Indian History) উপর থেকে দিল্লি সুলতানি (Delhi Sultanate) যুগের খলজি বংশের (Khalji Dynasty) সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হল এবং আপনাদের বিভিন্ন রকম চাকরির পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য খরজি বংশের উপর থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর(MCQs) দেওয়া হল। প্রশ্ন উত্তর গুলি নিচে দেওয়া আছে।  


Khalji Dynasty ( খলজি বংশ )      

                            

 খলজি বংশের সংস্থাপক ছিলেন জালাল উদ্দিন খলজি। এই বংশের শেষ শাসক ছিলেন মুবারক খলজী। আফগানিস্তানের হেলমন্দ নদীর তীরবর্তী প্রদেশকে খলজী নামে জানা যেত। খলজিরা মূলত তুর্কি ছিল, কিন্তু ইলবারি তুর্কি ছিল না।



 খলজি শাসকগণ :


 জালালউদ্দিন ফিরোজ খলজি: 
                                  জালালউদ্দিন ফিরোজ খলজির উপাধি ছিল ইবনে সইফ অর্থাৎ তরবারের ছেলে এবং শায়েস্তা খাঁ। মালিক ফিরোজ খলজি কাবিলে তুর্কি ছিল। তিনি নিজের ভাই শিহাব উদ্দিন এবং তার পুত্র আলি গুর্শপকে নিয়ে অনেকদিন ধরেই বলবনের সেবা করেছিলেন। তিনি  জালাল উদ্দিন বলবনের "সার-ই-জান্দার" ছিলেন। এরপর তিনি উত্তর-পশ্চিম সীমান্তের প্রধান রক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হন এবং মোঙ্গলদের সঙ্গে সফলতা পূর্বক লড়াই করেছিলেন। কায়কোবাদ জালাল উদ্দিন খলজিকে মুমালিকের পদ দেন।


          জালাল উদ্দিন 70 বছর বয়সে সিংহাসনে সুলতান হিসাবে আহরণ করেন যা সুলতানি ইতিহাসে সর্বাধিক বৃদ্ধ বয়সের সুলতান। সুলতান জালালুদ্দিন পাগড়ি ধারণ করতেন। নয়ন জৈনি জালালুদ্দিন খিলজীর অধিকারী ছিল।

 

আলাউদ্দিন খলজী: আলাউদ্দিন খলজির মূল নাম ছিল আলী বা আলী গুর্শপ। ১২৬৬সালে শীর্শাতে তার জন্ম হয়। আলাউদ্দিন খলজী গজনীর জামা মসজিদের খুতবা পড়েছিলেন। বিশ্বের সুলতানি যুগের বিজেতা এবং পৃথিবীর শাসক বলে আলাউদ্দিন খলজি কে সম্বোধন করেছেন আমির খসরু। মোহাম্মদ হাবিব এর অনুসারে-মধ্যকালীন ভারতের(Medieval India) রাজনৈতিক ইতিহাসের শুরু আলাউদ্দিন আলাউদ্দিন খলজী কে দিয়ে।



আলাউদ্দিন খলজির সেনাপতি জাফর খাঁকে সেই যুগের রুস্তম বলা হত। মালিক নায়ক নামে একজন হিন্দু সেনা আলাউদ্দিন খলজির সেনাবাহিনীতে ছিলেন, যাকে দেখে মোঙ্গলরা ভয় পেতেন এবং তিনি মোঙ্গলদের হারিয়ে ছিলেন। দিল্লির সুলতানি যুগের সর্বাধিক মোঙ্গল আক্রমণ আলাউদ্দিন খলজির সময়কালে হয়েছিল। অধিকাংশ ইতিহাসকারকের মতে আলাউদ্দিন খলজির আমলে মোট 6 বার মোঙ্গল আক্রমণ হয়েছিল।



 আলাউদ্দিন খলজির আমলে বাজার ব্যবস্থা ছিল সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ। তেরোশো তিন(1303) খ্রিস্টাব্দে চিতোর বিজয়ের পর আলাউদ্দিন খলজির বাজার ব্যবস্থা নিয়ম চালু করেন। বাজার ব্যবস্থার বিস্তারিত বিবরণ বরণির "তারিখ-ই-ফিরোজশাহীতে" পাওয়া যায়। বরণির অনুসারে মোঙ্গলদের আক্রমণ রুখতে আলাউদ্দিন খলজি কে বিশাল পরিমাণ সেনাবাহিনী রাখতে হতো এবং এই সেনাবাহিনীর ভরণপোষণ যাতে খুব কম বেতনে পরিপূর্ণ করা যায় তার জন্য তিনি এই বাজার ব্যবস্থা চালু করেন।



আলাউদ্দিন খলজির আমলে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলি হল-

i) তার আমলেই সর্বাধিক পরিমাণে খালসা জমির বিস্তার হয়েছিল। 
ii) ঘোড়ার চিহ্নিতকরণ এবং সৈনিকদের হুলিয়া প্রথা সর্বপ্রথম প্রচলন আলাউদ্দিন খলজী করেছিল।
iii) আলাউদ্দিন খলজী প্রথম সুলতান ছিলেন যিনি বেশ্যাবৃত্তি বন্ধ করার চেষ্টা করেন। 
iv) আলাউদ্দিন খলজি জৈন কবি রামচন্দ্র শুরিকে সম্মানিত করেছিলেন।



             আলাউদ্দিন খলজির পর খলজি বংশের পরবর্তী শাসক হিসাবে শিহাব উদ্দিন ওমর, কুতুব উদ্দিন মোবারক, নাসিরুদ্দিন বাহারামশাহ খলজি বংশের উত্তরাধিকারী হিসেবে দিল্লির সুলতানি সিংহাসনে বসেন।



 দিল্লি সুরতানি যুগ  দাস বংশ


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন